দাবানলে গাড়ির মধ্যে জীবন্ত পুড়ে মারা গেলেন অন্তত ৩০ জন

June 19, 2017 at 4:45 am

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক: পর্তুগালে ভয়াবহ দাবানল। বহু গাড়িতে ছড়িয়ে পড়ল আগুন। গাড়ির মধ্যে জীবন্ত পুড়ে মারা গেলেন অন্তত ২৪জন। এছাড়াও এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় মারা গেছে অন্তত ৬২ জন। আহত আরো অনেকে। আগুন নেভাতে কাজ করছে প্রায় ১৫০টি দমকল। উদ্ধারকাজে আহত বহু দমকলকর্মীও। ঘটনাস্থলে দেশের প্রধানমন্ত্রী-প্রেসিডেন্ট। মৃত ও আহতদের জন্য প্রার্থনা করেছেন পোপ ফ্রান্সিস।

ভয়ঙ্কর দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে পর্তুগালে। জীবন্ত দগ্ধ বহু। গুরুতর আহত অনেকে। মধ্য পর্তুগালের জঙ্গলে হঠাত্‍ই লেগেছে আগুন। লিসবনের প্রায় ২০০ কিলোমিটার দক্ষিণে পেড্রোগাও গ্র্যান্ডের পার্বত্য এলাকায় আগুন লাগে। রাস্তায় আটকে পড়ে গাড়ি। আগুন ধরে যায় সেই সব গাড়িতে। গাড়ির মধ্যে পুড়ে মারা যান বহু মানুষ। ধোঁয়ায় শ্বাসবন্ধ হয়ে মারা যান বহু। দেশের ভয়ঙ্করতম দাবানলের মধ্যে এটি অন্যতম। এমনই দাবি সরকারের। স্বরাষ্ট্রসচিব জর্জ গোমসকে নিয়ে ঘটনাস্থলে যান প্রেসিডেন্ট মার্সেলো রেবেলো দ্য সাউসা। ঘটনায় শঙ্কিত প্রধানমন্ত্রী অ্যান্তোনিও কোস্তা। দাবানল ঠেকাতে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় প্রায় ১৫০টি ইঞ্জিন। প্রায় ১ হাজার দমকলকর্মী উদ্ধারকাজে হাত লাগান। আগুন নেভাতে গিয়ে আহত হন বহু দমকলকর্মীও।

নিহতদের মধ্যে চার শিশুও রয়েছে। আহত হয়েছে ৫০ জনেরও বেশি। দাবানল থেকে বাঁচতে গাড়ি করে পালানোর সময় বেশিরভাগ মানুষের প্রাণহানি হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এরইমধ্যে তিনদিনের জাতীয় শোক ঘোষণা করেছে পর্তুগাল কর্তৃপক্ষ।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জর্জ গোমেজ বলেন, নিহতদের মধ্যে ৩০ জনের মরদেহ উদ্ধার হয় গাড়ির ভেতর থেকে। আইসিএইট মোটরওয়েগামী একটি সড়ক থেকে ওই মরদেহগুলো উদ্ধার হয়। আর ১৭টি মরদেহ উদ্ধার হয়েছে গাড়ির আশপাশ থেকে। গোমেজ জানান, মোটরওয়ের কাছাকাছি একটি গ্রাম থেকে আরও ১১টি মরদেহ উদ্ধার হয়।

Print