বাঘায় লিচুর বম্পান ফলন, তবুও দাম বেশি

May 26, 2017 at 5:50 pm

আমানুল হক আমান, বাঘা:
রাজশাহীর বাঘা উপজেলায় লিচুর বাম্পার ফলন হয়েছে। বিভিন্ন হাট-বাজারে মৌসুমী ফল লিচু জমে উঠেছে। ক্রেতা-বিক্রেতারা ছুটছেন লিচু কেনা-বেচার করবারের জন্য। তবে গতবারের চেয়ে দাম একটু বেশি।
জানা যায়, উপজেলার আড়ানী বাজার, চন্ডিপুর বাজার, বাঘা বাজার, বাউসা বাজার, রুস্তমপুর বাজার, মনিগ্রাম বাজারসহ বিভিন্ন বাজারে লিচু আমদানী হচ্ছে। লিচু বাজারে আমদানি হলে দাম অনেক বেশি। সাধারণ ক্রেতাদের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে। ১০০ লিচু ১৮০ থেকে ২৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
লিচু ব্যবসায়ী আব্দুল সামাদ ও বাহাদুর হোসেন সিল্কসিটি নিউজকে বলেন, এলাকায় উৎপাদন কম, এছাড়া লেবার খরচ বেশি, তাই দামটাও একটু বেশি। সময় মতো বৃষ্টি না হওয়ায় লিচুর গুটি ঝড়ে পড়ে। তবে মুকল আসার পরপর কিছু বৃষ্টি হওয়ায় গুটি আটকিয়েও যায়। কিন্তু গুটি বড় হওয়ার পরেও কিছু ঝরে যায়। তারপরও বাম্পার ফলন হয়েছে। মুকুল আসার আগে থেকে সেচ দেয়া, কীটনাশক স্প্রে করা, বাগানে পরিচর্যা করতে হয়।
তকিনগর আইডিয়াল হাইস্কুল এ্যান্ড কলেজের শিক্ষক রফিকুল ইসলাম বলেন, ৭১ শতাংশ জমির উপর ১০ থেকে ১২ বছর আগে ৩২টি লিচু গাছ রোপন করা হয়। ওই বাগানের প্রায় গাছে লিচু এসেছে। অনেক কষ্ট করে ¯েপ্র করে গুটি ঝরা থেকে রক্ষা করা হয়। ফলনও ভাল হয়েছে।
লিচু চাষী সেকেন্দার রহমান বলেন, দেড় বিঘা জমিতে ২০টি লিছু গাছ আছে। কিন্তু প্রায় ১৫ দিন থেকে গুটি কালো হয়ে ঝড়ে যাচ্ছে। এই গুটি ঝরা থেকে রক্ষা করা যাচ্ছেনা। গুটি ঝরার কারণও সটিকভাবে নির্নয় করতে পারছিনা।
কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় সাতটি ইউনিয়ন ও দুটি পৌরসভায় ৫০ হেক্টর জমিতে লিচু চাষ হয়েছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাবিনা বেগম বলেন, অতিতাপমাত্রার কারনে বোটা শুকিয়ে ঝরতে পারে। চাষীদের সময় মতো সেচ দেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। তবে উৎপাদন কম হওয়ায় তুলনামূলক দাম বেশি। তবে বাম্পার ফলন হয়েছে।

স/আর

Print