ভাঙচুরের মামলায় ভূমিমন্ত্রীর ছেলেসহ ১১ জন কারাগারে

May 19, 2017 at 2:10 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক: পাবনার ঈশ্বরদীতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়ি ভাঙচুরের একটি মামলায় ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফের ছেলে শিরহান শরীফ তমালসহ ১১ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাতে ঈশ্বরদীর বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল হাই তালুকদার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। গ্রেফতারের পর তাদের পাবনা জেলা আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান ওসি। পরে আদালত থেকে শুক্রবার দুপুরে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

শিরহান শরীফ তমাল ঈশ্বরদী পৌর যুবলীগের স্থগিত কমিটির সভাপতি। নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন জানান, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে পাবনা-৪ আসনের এমপি ও ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর সঙ্গে তার জামাতা ঈশ্বরদীর পৌর মেয়র আবুল কালাম আজাদের অনেকদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে।

এরই জের ধরে বৃহস্পতিবার (১৮ মে) বিকালে ভূমিমন্ত্রী সমর্থিত যুবলীগ নেতা রাজিব সরকারের নেতৃত্বে ১০/১৫ জনের একটি দল ঈশ্বরদী পৌর সদরে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়। মন্ত্রীর জামাতা আবুল কালাম আজাদের মিস্টির দোকান, বেশ কিছু সাধারণ ব্যবসায়ীর দোকানে ভাঙচুর চালানো হয়। একই সময়ে হামলাকারীরা আবুল কালাম আজাদের সমর্থক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের বিশ্বাসের বাড়িতেও ভাঙচুর চালায়। বাধা দিতে গেলে তাদের মারধরে ছাত্রলীগ সভাপতির মা আহত হন।.

পুলিশ জানায়, হামলার ঘটনায় ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের বিশ্বাসের বাবা মুক্তিযোদ্ধা আতিয়ার বিশ্বাস বাদি হয়ে ঈশ্বরদী থানায় বৃহস্পতিবার রাতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় ভূমিমন্ত্রীর ছেলে শিরহান শরীফ তমালকে এক নম্বর ও যুবলীগ নেতা রাজিব সরকারকে দুই নম্বর আসামি করা হয়। রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১১  ্আসামিকে গ্রেফতার করে। সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

Print