হাজার বছরের মহিরুহের পতন

January 11, 2017 at 12:29 pm
0
27

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক :

হাজার বছর ধরে দাঁড়িয়ে ছিল মহিরুহটি। এটি একটি সিকোইয়াগাছ, পাইওনিয়ার কেবিন ট্রি বলে যার ইতিহাস রয়েছে। আঠারো শতকের শেষ দিকে সুবিশাল এই প্রাচীন গাছটির গুঁড়িতে সুড়ঙ্গ কেটে গাড়ি চলাচলের মতো পথ করা হয়। এ জন্য এটি টানেল ট্রি বলেও পরিচিত। তবে এই গাছ এখন আর আকাশমুখী হয়ে দাঁড়িয়ে নেই। ঝড়বৃষ্টি আর বন্যা এই কালের সাক্ষীকে ভূতলশায়ী করেছে।

সুড়ঙ্গপথ দিয়ে আসা-যাওয়া করতেন পর্যটকেরা। ছবি: এএফপিরয়টার্সের খবরে জানানো হয়, যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া মধ্য ও উত্তরাঞ্চলে কয়েক দিন ধরে চলা ঝড়বৃষ্টিতে স্থানীয় সময় গত রোববার পতন হয়েছে মহিরুহের। কালাভেরাস কাউন্টির কালাভেরাস বিগ ট্রিস স্টেট পার্কের সঙ্গে যুক্ত অলাভজনক একটি সংস্থা এ তথ্য জানিয়েছে। মাটিতে সটান পড়ে থাকা এই মহিরুহের ছবি দেখে অনেকেই শোকাহত।
লেখা রয়েছে গাছের পরিচয়। ছবি: কালাভেরাস বিগ ট্রিস অ্যাসোসিয়েশন ফেসবুক পেজআঠারো শতকের আশির দশকে সিকোইয়াগাছটির গুঁড়িতে সুড়ঙ্গ কেটে বিশাল এক ফোকর তৈরি করা হয়। কালাভেরাস বিগ ট্রিস অ্যাসোসিয়েশনের ফেসবুক পেজেও মাটিতে পড়া গাছটির ছবি প্রকাশিত হয়েছে।
সুড়ঙ্গপথটি ২ দশমিক ৪ কিলোমিটার দীর্ঘ। যুক্তরাষ্ট্রের বন বিভাগ বলছে, কেবল পর্যটকেরাই ওই সুড়ঙ্গপথ দিয়ে পার হতেন।
সানফ্রান্সিসকো ক্রনিকেলকে পার্কের স্বেচ্ছাসেবী জিম অ্যালডে বলেন, গাছটি পড়ে যাওয়ার আগেও রোববার সকালে সড়কপথে পর্যটকেরা যাতায়াত করেন। স্থানীয় সময় বেলা দুইটার দিকে গাছটি পড়ে যায়।
অ্যালডে বলেন, পার্কটি পানিতে ডুবে গিয়েছিল। মাটিতে আছড়ে পড়া গাছটি দেখে মনে হচ্ছিল, কোনো পুকুর, হ্রদ বা নদীতে পড়ে আছে।
গত সোমবার পর্যন্ত গাছটির প্রকৃত বয়স বোঝা যায়নি। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল পার্ক সার্ভিস বলছে, জায়ান্ট সিকোইয়াগাছগুলো তিন হাজারেরও বেশি বছর বাঁচে। এটি বিশ্বের দীর্ঘজীবী গাছগুলোর মধ্যে একটি ছিল।
সানফ্রান্সিসকো ক্রনিকেল আরও বলছে, বৃষ্টির পানি জমে থাকা ও অগভীর শিকড়ের কারণে গাছটি পড়ে গেছে। গাছটির শিকড় মাত্র দুই থেকে চার ফুট গভীরে ছিল।

ভেঙে পড়া মহীরূহের একাংশ। ছবি: কালাভেরাস বিগ ট্রিস অ্যাসোসিয়েশন ফেসবুক পেজ

সূত্র : প্রথম আলো